ইনফিনিক্স স্মার্টফোন কিনলেই ‘থাইল্যান্ড’ অথবা ‘নেপাল’ ভ্রমণের সুযোগ

প্রিমিয়াম স্মার্টফোন ব্র্যান্ড ইনফিনিক্সের নতুন মোবাইল হ্যান্ডসেট কিনলেই গ্রাহকরা এবার জিতে নিতে পারবেন ১ লাখ টাকা সমমূল্যের পুরস্কার। অসাধারণ এই প্রমোশনাল অফারটি ঘোষণা করা হয়েছে সকল ইনফিনিক্স স্মার্টফোনপ্রেমীদের জন্য। এছাড়া, ঈদ-উল-ফিতর উদযাপনের বাড়তি আনন্দ হিসেবে তাদের দেওয়া হচ্ছে একেবারেই বিনামূল্যে থাইল্যান্ড কিংবা নেপাল ঘুরে আসার সুযোগও। গ্রাহকদের জন্য প্রধান আকর্ষণ ও প্রথম পুরস্কার হিসেবে থাইল্যান্ড ভ্রমণের এই অফারের পাশাপাশি দ্বিতীয় পুরস্কারে রয়েছে নেপাল ভ্রমণের সুযোগ। ক্যাম্পেইনটিতে রয়েছে থাইল্যান্ড ও নেপাল ভ্রমণের একাধিক পুরস্কার। এছাড়া সরাসরি লটারির মাধ্যমে জি৮৮ গেমিং স্মার্টফোন ‘হট১১এস’ এবং সর্বোচ্চ ৫ হাজার টাকা ক্যাশব্যাক অফার সহ অন্যান্য পুরস্কার জিতে নিতে পারবেন বিজয়ীরা।

আগামী ৫ এপ্রিল থেকে শুরু হচ্ছে এই ক্যাম্পেইনটি, যেটি চলবে ঈদ-উল-ফিতর পর্যন্ত। নির্ধারিত সময়ে যেকোনো মডেলের ইনফিনিক্স স্মার্টফোন কিনলেই গ্রাহকরা এসব অফার ও পুরস্কার লুফে নিতে পারবেন। এছাড়া সব স্মার্টফোনের জন্যই থাকছে এক বছরের স্ট্যান্ডার্ড ওয়ারেন্টি।

নির্দিষ্ট হ্যান্ডসেটটি কেনার পর গ্রাহকদের সঠিক ফরম্যাটে যেকোনো বৈধ মোবাইল নাম্বার থেকে ২৬৯৬৯ নাম্বারে এসএমএস পাঠাতে হবে। গ্রাহকরা আউটলেট থেকে মোবাইল কেনার সময় এসএমএস ফরম্যাটটি জানতে পারবেন। এরপর লটারির মাধ্যমে শীর্ষ বিজয়ীদের নির্ধারণ করা হবে এবং ইনফিনিক্স ফিরতি এসএমএস এ এই ফল জানিয়ে দেবে। আর পরবর্তী করণীয় সম্পর্কে জানাতে থাইল্যান্ড ও নেপাল ভ্রমণ বিজয়ী সৌভাগ্যবানদের সঙ্গে ইনফিনিক্সের হেড অফিস থেকে যোগাযোগ করা হবে।

শুধুমাত্র বাংলাদেশের গেমিং কমিউনিটির জন্য অবিশ্বাস্য ও আকর্ষণীয় মূল্যে ইনফিনিক্স নিয়ে এসেছে সেরা গেমিং স্মার্টফোন হট১১এস। হেলিও জি৮৮ ডুয়েল-চিপ প্রসেসর এবং ৬+১২৮ বর্ধিত স্টোরেজ সুবিধাসহ অনন্য গেমিং অভিজ্ঞতা দিতে সক্ষম এই ডিভাইসটি বাজারে পাওয়া যাচ্ছে ১৫ হাজার ১৯০ টাকায়। এর আগে এই স্মার্টফোনটির নিয়মিত দাম ছিল ১৫ হাজার ৯৯৯ টাকা। স্মার্টফোন সম্পর্কিত অন্যান্য আরো তথ্যের জন্য গ্রাহকদের ইনফিনিক্সের অফিসিয়াল ফেসবুক পেজ থেকে ঘুরে আসার নিমন্ত্রণ রইল।

ইনফিনিক্স সম্পর্কে:
বিশ্বব্যাপী মোবাইলের ডিজাইন, তৈরি এবং বাজারজাতকরণে দ্রুত বর্ধনশীল স্মার্টফোন ব্র্যান্ড ইনফিনিক্স মোবাইল ২০১৩ সালে প্রতিষ্ঠা করা হয়। নিজেদের ব্র্যান্ডের ডিভাইসগুলো ব্যবহারকারীদের কাছে পৌঁছে দিতে বড়সড় পোর্টফোলিও নিয়ে কাজ করছে ইনফিনিক্স। জেড প্রজন্মকে লক্ষ্য করে ইনফিনিক্স নিপুনভাবে ডিজাইন করা স্মার্টফোনের নান্দনিক স্টাইল, ক্ষমতা এবং পারফরমেন্সসহ কাটিং-এইজ প্রযুক্তি উন্নয়নে কাজ করছে। ডিভাইসগুলোকে ট্রেন্ডি লুক দেয়া এবং প্রান্তিক ব্যবহারকারী কাছে সহজলভ্য করার ক্ষেত্রে একধাপ এগিয়ে আছে তারা। ‘ফিউচার ইজ নাউ’কে ধারণ করে, ইনফিনিক্স তরুণ গ্রাহকদের এমন সব সুবিধা হাতের নাগালে এনে দিতে চায় যাতে বাজারে থাকা প্রতিযোগীদের ভিড়ে বিশ্বকে তাদের সক্ষমতার কথা জানান দিতে পারে। ইনফিনিক্সের পোর্টফোলিতে থাকা পণ্যগুলো আফ্রিকা, লাতিন আমেরিকা, মধ্যপ্রাচ্য, দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া এবং দক্ষিণ এশিয়াসহ বিশ্বের ৪০টিরও বেশি দেশে পৌঁছে গেছে। ইনফিনিক্সের বর্তমান বাজার অভাবনীয় দ্রুত গতিতে বাড়ছে। ২০১৮-২০২০ সালে ১৬০% শতাংশ হারে বৃদ্ধি পেয়েছে। আকর্ষণীয় ডিজাইন ও শক্তিশালী ফিচারসহ ফ্ল্যাগশিপ-পর্যায়ের ডিভাইস তৈরি অব্যাহত রাখতে আগামী দিনগুলোতে বিশাল পরিকল্পনা নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে প্রতিষ্ঠানটি।

Facebook Comments