উত্তরায় ইফতারের দাওয়াত দিয়ে ছুরিকাঘাতে হত্যা

রাজধানীর আব্দুল্লাহপুরে ইফতারের দাওয়াতে গিয়ে ছুরিকাঘাতে আরেফিন শাকিল (২৬) নামে এক যুবক নিহত  হয়েছেন। রোববার (৯ মে) সন্ধ্যা সাতটার দিকে ভূঁইয়া সাব্বির আইসি হাসপাতালের সামনে ছুরিকাঘাতের ঘটনা ঘটে। 

উত্তরা পূর্ব থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. কামাল উদ্দিন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। নিহতের ভাই শাহাদাত ঢাকা পোস্টকে বলেন, এলোপাতাড়ি ছুরিকাঘাতে গুরুতর আহত হন শাকিল। ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের জরুরি বিভাগে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত সাড়ে দশটায় শাকিলের মৃত্যু হয়।

শাহাদাত বলেন, শাকিল উত্তরা হাউজ বিল্ডিং ও আব্দুল্লাহপুরে ফুটপাতে কাপড়ের ব্যবসা করতেন। শনিবার ভূঁইয়া সাব্বিরের সঙ্গে তার কোনো বিষয় নিয়ে কথা কাটাকাটি হয়। পরে ভূঁইয়া সাব্বির রবিবার তাকে ইফতারের দাওয়াত দেন। রবিবার সন্ধ্যায় শাকিল তার বান্ধবী ও এক বন্ধুকে নিয়ে আব্দুল্লাহপুরের আইসি হাসপাতালের সামনে যান। এরপর তাদের ২ জনকে বসিয়ে রেখে শাকিলকে আইসি হাসপাতালের পেছনের গলিতে নিয়ে যান। সেখানে  শাকিলকে ছুরিকাঘাত করেন সাব্বিরসহ আরও ৫-৬ জন। 

পুলিশ জানায়, শাকিল সপরিবার দক্ষিণখানের গোয়ালটেক এলাকায় থাকতেন। তাঁর বাবার নাম তাইজুল ইসলাম। তিন ভাই ও এক বোন সবার মধ্যে তিনি দ্বিতীয়। তার বাড়ি সাভারের হেমায়েতপুর এলাকায়।

 

অভিযুক্ত সাব্বির উত্তরখান থানার ভূঁইয়া পাড়া এলাকায় থাকেন। সূত্র জানায়, নিহত শাকিল ও সাব্বির দুজনে কিশোর গ্যাংয়ের নেতৃত্ব দিতেন। এই নেতৃত্ব নিয়ে তাদের মধ্যে বাকবিতণ্ডা হয়ে থাকতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

ঢামেক পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ (পরিদর্শক) বাচ্চু মিয়া ঢাকা পোস্টকে জানান, শাকিলের লাশ ময়না তদন্তের জন্য ঢামেক হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে। এ বিষয়ে উত্তরা পূর্ব থানাকে অবগত করা হয়েছে।

Facebook Comments