বোরখা পরায় ছাত্রীকে মিয়া খলিফার সঙ্গে তুলনা শিক্ষকের

শিক্ষক শ্রেণিকক্ষে প্রবেশের পর দাঁড়িয়ে সম্মান না করায় বোরখা পরিহিত দশম শ্রেণির এক ছাত্রীকে পর্নো তারকা মিয়া খলিফার সঙ্গে তুলনা করে ভর্ৎসনা করেছেন এক শিক্ষক। শুধু এতেই ক্ষ্যান্ত হননি তিনি। ওই ছাত্রীকে পুরো একঘণ্টা দাঁড়িয়ে ক্লাস করতেও বাধ্য করেন তিনি।

গত ১৪ মার্চ সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলার ব্রজেন্দ্রগঞ্জ আরসি উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ইংরেজি ক্লাসে এ ঘটনা ঘটে। অপমানিত ওই ছাত্রী প্রধান শিক্ষককে ঘটনা জানালেও কার্যকর কোন ব্যবস্থা না নেয়ায় সাধারণ ছাত্রছাত্রী ও অভিভাবকরা বিক্ষুব্ধ হয়ে ওঠে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত ইংরেজি শিক্ষক সেবক রঞ্জন দাসের শাস্তি দাবি করে রোববার সকালে বিদ্যালয়ে বিক্ষোভ মিছিল করে সাধারণ ছাত্রছাত্রীরা।

পরে দুপুরে তড়িঘড়ি করে বিদ্যালয়ের শিক্ষক হলরুমে ম্যানেজিং কমিটি, শিক্ষক, অভিভাবক ও স্থানীয়দের উপস্থিতিতে সালিশি বৈঠক হয়। বৈঠকে নিজের ভুল স্বীকার করে শিক্ষক সেবক রঞ্জন দাস ক্ষমা প্রার্থনা করেন। খবরটি এতদিন আড়ালে থাকলেও চলমান টিপ বিতর্কের জেড়ে খবরটি নতুন করে ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে। সেখানে নেটিজেনরা বোরখা পড়া মেয়ের সমর্থনে সাম্প্রদায়িক আচরণ করা শিক্ষকের শাস্তি দাবি করেন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক দশম শ্রেণির একাধিক শিক্ষার্থী বলেন, শনিবার ইংরেজি ক্লাস নিতে সেবক স্যার ক্লাসে প্রবেশ করলে আমরা অনেকেই দাঁড়িয়ে সম্মান জানাই। সূত্রঃ দৈনিক মানবজমিন

Facebook Comments