মাইশা মমতাজ মীমের মৃত্যুর দায় স্বীকার করল চালক ও সহকারী

রাজধানীর কুড়িল বিশ্বরোডে সড়ক দুর্ঘটনায় নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী মাইশা মমতাজ মীমের মৃত্যুর ঘটনায় গ্রেপ্তার চালক আসামি মো. সাইফুল ইসলাম ও সহকারী মো. মশিউর রহমান দায় স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দি দিয়েছেন।

আজ শুক্রবার ঢাকা মহানগর হাকিম মোশাররফ হোসেনের আদালত তাদের জবানবন্দি রেকর্ড করেন। চার দিনের রিমান্ড শেষে দুই আসামিকে আদালতে হাজির করে পুলিশ। এ সময় আসামিরা স্বেচ্ছায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিতে সম্মত হওয়ায় তা রেকর্ড করার আবেদন করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা খিলক্ষেত থানার উপ-পরিদর্শক রিপন কুমার।আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে আদালত তাদের জবানবন্দি রেকর্ড করেন।

এরপর তাদের কারাগারে পাঠানো হয়। এর আগে গত ১ এপ্রিল রাতে কাভার্ডভ্যানের চালক সাইফুল ও তার সহকারী মশিউরকে চট্টগ্রাম থেকে গ্রেপ্তার করে খিলক্ষেত থানা পুলিশ। এ সময় কাভার্ড ভ্যানটিও জব্দ করা হয়।

এরপর গত ৩ এপ্রিল দুই আসামিকে আদালতে হাজির করা হয়। এরপর মামলার সুষ্ঠু তদন্তের স্বার্থে প্রত্যেকের সাত দিন করে রিমান্ডে নিতে আবেদন করেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা। আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে আদালত তাদের চার দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

গত ১ এপ্রিল সকাল ৭টার দিকে কুড়িল বিশ্বরোডে সড়কে মীমকে রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখে তাকে উদ্ধার করে এক পথচারী। দ্রুত কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে নেওয়া হলে মীমকে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসক।

এই ঘটনার পরের দিন সন্ধ্যায় রাজধানীর খিলক্ষেত থানায় ২০১৮ সালের সড়ক পরিবহন আইনে মামলাটি করেন মীমের বাবা নূর মোহাম্মদ মামুন।

Facebook Comments