শিক্ষার্থীরা বাড়ি পৌঁছে দেয়ার আবেদন করলে সুপারিশ করবেন অধ্যাপক সামাদ


সশরীরে পরীক্ষা দিতে এসে রাজধানীতে আটকেপড়া শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয়ের নিজস্ব বাসে বাড়ি পোঁছে দেওয়ার আবেদন করলে সুপারিশ করবেন বলে জানিয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ সামাদ। মঙ্গলবার (২৯ জুন) এ কথা জানান তিনি।

অধ্যাপক সামাদ বলেন, এমন পরিস্থিতিতে শিক্ষার্থীদের জন্য পরিবহন ব্যবস্থা হওয়াটা কাম্য। আমিও চাই শিক্ষার্থীদের জন্য এই সেবাটা দিতে। শিক্ষার্থীরা যদি আসে, তালিকাসহ দরখাস্ত দেয় তাহলে আমি এ বিষয়ে সুপারিশ করব। এখন বিপদের সময় শিক্ষার্থীদের পাশে থাকা আমাদের দায়িত্ব।

তিনি বলেন, করোনা পরিস্থিতিতে ঢাকার বাইরে বাস পাঠালে উপাচার্যের অনুমতি লাগবে। শিক্ষার্থীরা আবেদন করলে আমি উপাচার্য বরাবর সুপারিশ করব। দ্রুত আবেদন করার পরামর্শও দেন উপ-উপাচার্য।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান ঢাকা পোস্টকে বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় একটি নিয়মনীতির মাধ্যমে পরিচালিত হয়। শিক্ষার্থীদের জন্য যা কিছু উত্তম, যা কিছু মঙ্গলজনক, সে ধরনের কর্ম প্রয়াস ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় গ্রহণ করে। আমাদের শিক্ষার্থীদের বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্ভাব্য সব উপায়ে কীভাবে তাদের সুরক্ষা দেওয়া যায় এবং একাডেমিক কার্যাবলী সুষ্ঠুভাবে পরিচালনা করা যায়, সে ধরনের নানা প্রয়াস আমরা অব্যাহত রাখছি।

 

এদিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী শিক্ষার্থীরা সশরীরে পরীক্ষা দিতে ঢাকায় অবস্থান করে। করোনা পরিস্থিতি অবনতি হলে সশরীরে পরীক্ষা স্থগিত করে কর্তৃপক্ষ। অন্যদিকে বিধিনিষেধ শুরু হওয়ায় বাড়ি ফিরতে বিপাকে পড়েন শিক্ষার্থীরা।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক মাস্টার্সের এক শিক্ষার্থী ঢাকা পোস্টকে বলেন, পরীক্ষার জন্য আমরা এই করোনার মধ্যে ঢাকায় এসে এখন বিপদে পড়ে গেলাম। কীভাবে বাড়ি যাব তা নিয়ে দুশ্চিন্তায় পড়ে গেছি। অন্য বিশ্ববিদ্যালয়গুলো নিজস্ব বাসে শিক্ষার্থীদের বাড়ি পৌঁছে দিলেও আমাদের ক্ষেত্রে তেমন কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়া হচ্ছে না।

বিশ্ববিদ্যালয়ের বাসে বাড়ি পৌঁছে দেওয়ার দাবি জানিয়ে আরেক শিক্ষার্থী বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কাছে দাবি জানাচ্ছি যাতে আমাদের নিরাপদে বাড়ি পৌঁছে দেওয়া হয়। এটা বিশ্ববিদ্যালয়ের দায়িত্ব বলেও আমি মনে করছি। অন্য বিশ্ববিদ্যালয় পারলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন পারবে না?

Facebook Comments