অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে তিন ফরম্যাটে জয় পূর্ণের লক্ষ্যে মাঠে নামছে বাংলাদেশ!

অষ্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে বহুল প্রত্যাশিত ও আলোচিত টি২০ সিরিজ অবশেষে আজ সন্ধ্যা ৬.০০ ঘটিকায় মাঠে গড়াচ্ছে। এই প্রথম কোন দলের বিপক্ষে ৫ ম্যাচের টি২০ সিরিজ খেলছে টাইগাররা। বাংলাদেশ দলে তামিম ও মুশফিক না থাকার বিপরীতে অজিদের ঘোষিত দলেও নেই ম্যাক্সওয়েল, ওয়ার্নার, ফিঞ্চ ও স্মিথের মতো ক্রিকেটাররা।

রঙ্গীন পোষাকের ওয়ানডে ক্রিকেটে মোহাম্মদ আশরাফুলের বিরোচিত সেঞ্চুরীতে ২০০৫ সালে অস্ট্রেলিয়াকে হারায় বাংলাদেশ। ২০০৫ সালে অজি বধের পর ২০১৭ সালে ঘরের মাঠে দুই ম্যাচ টেস্ট সিরিজে সাদা পোষাকের টেস্ট ক্রিকেটেও অজি বধ করে টাইগারবাহিনী। ইতিমধ্যে অজিদের বিপক্ষে দুই ফরম্যাটে জয়ের বিপরীতে ৪টি টি২০ ম্যাচ খেললেও এখনো জয় পায়নি টাইগাররা, এবার টি২০ ম্যাচে জয় তুলে নেওয়ার মাধ্যমে অজিদের তিন ফরম্যাটেই হারানোর কৃতিত্ব অর্জনের সুবর্ণ সুযোগ টাইগারদের সামনে।

বাংলাদেশ দল ইতিমধ্যে ওয়ানডে ক্রিকেটে টেস্ট খেলুড়ে সবগুলো দেশকে হারালেও তিন ফরম্যাটেই হারিয়েছে জিম্বাবুয়ে, উইন্ডিজ ও শ্রীলংকাকে। দুই ফরম্যাটে হারিয়েছে অস্ট্রেলিয়া, পাকিস্তান, ইংল্যান্ড ও ভারতকে। অজিদের আজ কিংবা চলতি সিরিজে হারাতে পারলে ৪র্থ দলের বিপক্ষে তিন ফরম্যাটেই জয়ের কৃতিত্ব অর্জন করবে বাংলাদেশ।

ঘরের মাঠে যথেষ্ট শক্তিশালী দল বাংলাদেশ। টি২০ ক্রিকেটে নিজেদের দুর্বলতার মাঝেও দূর্দান্ত কিছু সফলতা আছে টাইগারদের, তার মধ্যে ২০১৬ সালের টি২০ এশিয়া কাপের ফাইনাল খেলা এবং ২০১৮ সালের নিদাহাস ট্রফির ফাইনাল খেলা অন্যতম। এছাড়াও ভারতকে ভারতের মাটিতে এবং উইন্ডিজকে উইন্ডিজের মাটিতে হারানো অন্যতম।

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ইতিমধ্যে ৪ ম্যাচ খেলে ৪টিতেই পরাজয়বরণ করে বাংলাদেশ। তবে দুই দলের মধ্যকার ব্যাট ও বল হাতে সেরা ক্রিকেটার সাকিব আল হাসান। সাকিব ব্যাট হাতে অজিদের বিপক্ষে ৪ ম্যাচে ৬৬ রান বেস্টে সর্বোচ্চ ১৪৩ রান করেছেন। ২য় সর্বোচ্চ ৮৯ রান মুশফিকের, ৩য় সর্বোচ্চ ৮১ রান ডেভিড ওয়ার্নারের।

বল হাতে ৪ ম্যাটে ৩ উইকেট বেস্টে সর্বোচ্চ ৫ উইকেট শিকার করেন সাকিব আল হাসান। ১ ম্যাচে ২য় সর্বোচ্চ ৪ উইকেট শিকার করেন ডার্ক ন্যানেস। ৩ উইকেট শিকার করেন এডাম জাম্পা।

আজ সন্ধ্যায় দুই দল একে অপরের বিপক্ষে ৫ম টি২০ ম্যাচে মুখোমুখি হবে। চার ম্যাচে অজিরা জয় পেলেও আজকের ম্যাচে বাংলাদেশ সমানে সমান হয়েই মাঠে নামবে। শক্তি ও সামর্থ্যরে বিচারে অজিদের ফেভারিট বলা গেলেও বাংলাদেশও খুব বেশি পিছিয়ে নেই। নিজেদের শক্তিমত্তা ব্যবহার করা সম্ভব হলে অবশ্যই আজ জয় সম্ভব অজিদের বিপক্ষে।

বাংলাদেশের একাদশ অনেকটা অনুমেয়ই। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে খেলা সর্বশেষ ম্যাচ থেকে ২টি পরিবর্তন আসতে পারে বাংলাদেশের একাদশে। তাসকিন ও শরিফুলের পরিবর্তে একাদশে আসবেন মুস্তাফিজুর রহমান ও মাহেদী হাসান। ৩ পেসার নিয়ে খেলতে চাইলে মাহেদীর পরিবর্তে শরিফুল সুযোগ পাবেন, তবে ঘরের মাঠের স্পিন সুবিধা এবং টার্নিং উইকেটে মাহেদীর ব্যাটিং পাওয়ার বিবেচনায় মাহেদী হাসানেরই একাদশে থাকার সম্ভাবনা সবচেয়ে বেশি।

বাংলাদেশের সম্ভাব্য একাদশ-

নাইম শেখ, সৌম্য সরকার, সাকিব আল হাসান, মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ, আফিফ হোসেন, নুরুল হাসান সোহান, শামিম পাটোয়ারী, সাইফুদ্দিন, মাহেদী হাসান, নাসুম আহমেদ ও মুস্তাফিজুর রহমান

Facebook Comments