ঐতিহ্যবাহী ইতালির সামনে আন্ডারডগ তুর্কি

আজ শুরু হচ্ছে বিশ্বের অন্যতম জনপ্রিয় টুর্নামেন্ট উয়েফা “ইউরো ২০২০”। করোনা’র কারণে এক বছর পিছিয়ে এবছর অনুষ্ঠিত হচ্ছে এবারের বিশেষ এই আসরটি। এই প্রথম টুর্নামেন্ট আয়োজিত হচ্ছে ১১ টি দেশের ১১ টি ভিন্ন ভিন্ন শহরে। ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপের ৬০ বছর পূর্তি উপলক্ষে ২০২০ আসরকে বিশেষ রূপ দেওয়ার ঘোষণা এসেছিল আজ থেকে ৯ বছর আগে। ‘ফুটবলকে দর্শকের কাছে পৌঁছে দেওয়ার’ পরিকল্পনায় প্রাথমিকভাবে ইউরোপের ১২টি শহরে ৫১ ম্যাচের আসরটি আয়োজনের ঘোষণা দেওয়া হয়েছিল তবে করোনার থাবায় সেটি আর হয়নি!!

তবে এইবার আয়োজকরা করোনাকে চ্যালেঞ্জ করে টুর্নামেন্টটি আয়োজন করছে ইউরোপের ১১ টি শহরের বিভিন্ন ভেন্যুতে। উদ্বোধনী ম্যাচে রোমের স্তাদিও অলিম্পিকো স্টেডিয়ামে স্বাগতিক ইতালির মুখোমুখি হবে তুর্কি । নিজেদের মাঠ,কন্ডিশন, র‍্যাংকিং সব কিছুতেই তুর্কির থেকে এগিয়ে স্বাগতিকরা। র‍্যাংকিং এ ৭ নাম্বারে রয়েছে ইতালি অপরদিকে ফিফা র‍্যাংকিং এ তুর্কির অবস্থান ২৯। ২০১৮ রাশিয়া বিশ্বকাপে খেলতে ব্যার্থ হওয়ার পর দায়িত্ব নিয়ে পুরো দলের চেহারা পাল্টে দিয়েছেন আজ্জুরি কোচ রবার্তো মানচিনি। তরুণদের হাত ধরে দুর্দান্ত ফর্মে রয়েছে ইতালি। ইউরো বাছাইপর্বে টানা ১০ জয় সহ সর্বশেষ ২৭ ম্যাচ ধরে অপরাজিত ৪ বারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা। শেষ ৮ ম্যাচে কোন গোল ও হজম করে নি তারা। অপরদিকে তুর্কিও রয়েছে দারুন ফর্মে। সর্বশেষ ১১ ম্যাচে অপরাজিত কোচ গুনেসের শীর্ষরা।
ইতালির বিপক্ষে সর্বশেষ ৮ ম্যাচের মধ্যে কোনো জয় নেই তুর্কির। ইতালির ৫ জয়ের বিপরীতে ড্র হয়েছে বাকি ৩ টি ম্যাচ।

পরিসংখ্যানে যতই এগিয়ে থাকুক না কেনো মাঠের খেলায় যারা নিজেদের সেরাটা দিয়ে লড়াই করবে, তারাই হাসবে জয়ের হাসি। নিজেদের মাঠে, নিজেদের দর্শকদের সামনে অবশ্যই জিততে সর্বোচ্চটা উজাড় করে খেলবে স্বাগতিকরা। অপরদিকে তুর্কিও নিশ্চয়ই ছেড়ে কথা বলবে না।
আজ রাত ১ টায় রোমের “স্তাদিও অলিম্পিকো” তে যে অপেক্ষা করছে এক ধ্রুপদী লড়াই তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না।

Facebook Comments