সৃষ্টিশীল কবি ও লেখক মাহবুবুর রহমানের নতুন কবিতা প্রকাশিত হয়েছে। কবিতাটি বিডিনিউজ ট্র্যাকারের সাহিত্য বিভাগে প্রথম প্রকাশিত হয়। কবিতার নাম জীবনের তরে।

জীবনের তরে
মাহবুবুর রহমান


প্রেমহীন পাথুরে এ শীতে
ইট-পাথরের এ জনপদে
স্তরে স্তরে জমাট হৃদয়শুন্য
এ বরফের নগরে জমে যাচ্ছি ভাই।
শুনতে কি পাও? প্রেমভরা কম্বল-কাঁথা
কিছু একটা অবিলম্বে চাই।
যাঁদের আছে অঢেল টাকা-কড়ি,
মাটির বুক চিরে গড়া প্রাসাদোপম বাড়ি,
আহরিত স্তুপিকৃত সম্পদের সারি,
প্রমত্ত গতিময় সব বাহারি গাড়ি,
তাঁদের কাছে শুধু ন্যায্যটুকু চাই-
নূন্যতম বাঁচার অধিকার ভাই।

এ সমাজের ঘোর লাগা অনেকেই
কেবল নিজেদের নিয়েই বাঁচতে চায়।
তাঁদের আছে শুভ্র স্যুট কিংবা জমকালো শাড়ি,
প্রিয় বসন-বচনে মোড়ানো নর কিংবা নারী।
পুঁজিতন্ত্রের প্রজা আমি রাস্তার পাশে পরে মরি;
রাস্তায় বানায়ে ধুলির প্রাসাদ ক্ষুধার জীবন গোজারি।
সমাজের মাথাওয়ালা মন্ডুহীনদের কাছে জানতে চাই,
আচ্ছা, বলুন তো মশায়, আমাদের কি জীবন নাই?

এ সমাজে বহুজন আছে,
খেটে-খাওয়াদের ঘামের উপর আসীন হয়ে বাঁচে।
তাদের হিতৈষী মন মোহে লুট হয়ে গেছে
আর ডাকু বিলাসী জীবনে প্রেম হয়ে গেছে চুরি।
তাদের সুখের বেদি সাজাতে বলি হই আমরা
আর প্রজন্মান্তরে জীবন-জীবন ধুকে মরি।

বাঁচতে ইচ্ছা হয়,
এ ইচ্ছা অন্যায় কিছু নয়।
তাই প্রেমভরা উষ্ণতার কম্বল চাই।
এ ভালোবাসাহীন শীতের রাতের শেষ নাই,
এ শীত মানুষের অস্তি-মজ্জায় বারোমাস চলে তাই।
হৃদয়ে-হৃদয়ে সর্বস্পর্শী প্রেমের বৃক্ষ চাই,
তবেই দীঘল রাত আর পোড়া শীত নেবে বিদায়।

-মাহবুব,ঢাকা

আপনার মন্তব্য