সিফাত রহমানের একগুচ্ছ কবিতা

0
17

সিফাত রহমানের একগুচ্ছ কবিতা প্রকাশিত হয়েছে। জনপ্রিয় বাংলা অনলাইন নিউজ পোর্টাল বিডিনিউজ ট্র্যাকারে কবিতাগুলো প্রকাশিত হয়। পাঠকদের জন্য কবিতাগুলো তুলে ধরা হলো।

তুমি আসলে বেদনা আসেনা
সিফাত রহমান


তোমাকে নিয়ে বসে আছি মগজে,মাথায় কিচ্ছু আসেনা
একা,আর থাকিনা,
বেদনাকে নিয়ে সুয়ে আছি
তোমাকে আর লাগবে নাহ-!

বেনারসি আর হবেনা
নীল ভালো লাগে যে
কথা আর চাইনা,কথাতেই মৃত্যু লুকিয়ে থাকে।

বেদনা আসে, তুমি আসোনা
তুমি এলেই বেদনা আসেনা
তুমি আর বেদনা
কি এক বিষ্ময়কর আমি জানিনা
আমার ঈশ্বর জানেন-!

তোমাকে নিয়ে সুয়ে থাকি
বেদনারে উপেক্ষা করি
বেদনাকে নিয়ে সুয়ে থাকি
তোমাকে শূন্যে রাখি।

কি প্রেম জাগালে তুমি এই বিনষ্ট নগরীতে?
আলো আসেনা,ভোর হয়না
চোখ জাগেনা-অদ্ভুত ঘুম-!
তুমি আসলে বেদনা আসেনা!

তোমাকে আর লাগবে নাহ
সিফাত রহমান
তোমাকে নিয়ে বসে আছি মগজে,মাথায় কিচ্ছু আসেনা
একা,আর থাকিনা,
বেদনাকে নিয়ে সুয়ে আছি
তোমাকে আর লাগবে নাহ-!

বেনারসি আর হবেনা
নীল ভালো লাগে যে
কথা আর চাইনা,কথাতেই মৃত্যু লুকিয়ে থাকে।

বেদনা আসে, তুমি আসোনা
তুমি এলেই বেদনা আসেনা
তুমি আর বেদনা
কি এক বিষ্ময়কর আমি জানিনা
আমার ঈশ্বর জানেন-!

তোমাকে নিয়ে সুয়ে থাকি
বেদনারে উপেক্ষা করি
বেদনাকে নিয়ে সুয়ে থাকি
তোমাকে শূন্যে রাখি।

কি প্রেম জাগালে তুমি এই বিনষ্ট নগরীতে?
আলো আসেনা,ভোর হয়না
চোখ জাগেনা-অদ্ভুত ঘুম-!
তুমি আসলেই বেদনা আসেনা-!

   বৈশ্বানর
সিফাত রহমান


মানুষের হৃদয় যেন এক কারাগার
জন্মায় না কোন ফুল তাতে!

জানা কেউ কি ব্যাথা,মানে না কেউ
শুনে না কেউ যতনার কথা
ভালোবেসে হয়েছে শুধু চেতনাহীন এক নির্বোধ।

বৈশ্বানর, তুমি আর কি পোড়াবে আমায়?
হৃদয় যে আজ তপ্ত প্রভাকর!

ব্যাথায় কেউ কাঁদেনা,সয়ে যায়
ফুলের কি দোষ,এর সুন্দর হওয়ায়?

দুঃখ গুলো লতার মতো চেপে ধরে আমারে,
যেন তার সাথে আমার জন্মের ভাব।

তুমি জানো কি হে বৈশ্বানর-?
মানুষ হৃদয় আজ নিবর শশ্মান।

দূর্বোধ্য তুমি
সিফাত রহমান


তুমি মনে হয় ওই মেঘের আড়ালে থাকো,
যেখানে লুকায় চাঁদ,ক্লান্ত হৃদয় নিয়ে।

তুমি মনে হয়,ওই আকাশে থাকো
যেখানে ধোঁয়ায় নিজেকে ভাসায় বোহেমিয়ান।

আসলেই তুমি থাকো কোথায়
আমাব্যায় নাকি জ্যোৎস্নায়?
অম্লত্ব বাড়াও শুধু
কি তৃপ্তি তাতে?
সুখে ছোয়া ত ফাল্গুনী হাওয়াও চাই।

কি পাও তাতে?
নিরবে নিভৃতে কামনা কারো যারে -?
সেও ত পাকস্থলীবিহীন নই
যে’খাবেনা তোমাকে।

কেউ কেউ থাকে,আবার কেউই থাকে নাহ
কেউ কেউ ভালোবাসে,আবার কেউই বাসেনা।

নিঃসঙ্গতা নই সঙ্গীর অভাব বোধ,
আমাকে খাবার হিসাবে গ্রহণ করো তোমার পাকস্থলীতে,
হরিণের মাংসের মতো পুড়ে খাচ্ছো আমায় রোজ বেদনার ঘরে।

    নয়না
সিফাত রহমান


আছো তুমি অনল-অনিলে চির নভোনীলে ভূধর সলিল ও গহনে,
প্রান্তের খোলা আকাশে কালো নীরধর
কান পেতে শুনি হৃদয়ের ক্রদন।

ভুবনে যা দেখিলাম,নীড় হারা পাখির বেদন
ছোট চড়ুই,অথবা মেঘপাই
এরা ভালোবাসা বুনে আকাশের পথে।

কোলাহল থেকে অনেক দূরে,শোকের কাছে
বিরহে,মলিন হয়ে
কান পেতে শুনি নয়নার হাসি।

সরণির বুকে,যান্ত্রিক ভিড়
নিয়ম ভেঙ্গে চলছে অমানুষের দল

হর হর,কাঁপছে আকাশ,ভাঙ্গছে হৃদয়
ধর ধর,সর্প ফণী ধর
জোয়ারে ভাঙ্গবো এবার,খুনি তুমি কে হে,
হৃদয় করিয়াছো খুন-?

হে মৃত্রিকা সুন্দরী,
তুমি করিয়াছো বাস নয়নে,ভুলিয়া ব্যথা
বিধাতা তোমার জন্য আমারে করে দিক এই মোর সুপ্ত প্রার্থনা।

নয়নে থাকে নয়না,দিপ্ত শেখার মতো
জ্বলে অনল,সুদীর্ঘ রাত।

আপনার মন্তব্য