সৈকতের সংকাটপন্ন ঘোড়ার দায়িত্ব নিলেন যুবলীগ নেতা ব্যারিস্টার শেখ নাঈম

চলমান লকডাউনের প্রভাবে বিপাকে পড়া কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতের ঘোড়াগুলো যখন নিস্তেজ হতে হতে মৃত্যুর কবলে পড়ে যাচ্ছিলো তখন মানবিকতার হাত বাড়িয়েছেন কেন্দ্রিয় যুবলীগ নেতা ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নাঈম।

লকডাউনে ৩ মাস ধরে বন্ধ দেশের প্রধান পর্যটন কেন্দ্র কক্সবাজার। পর্যটক না আসায় আয় রোজগার বন্ধ হয়ে গেছে কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতের ঘোড়ার মালিকের। নিজেদের ৩ বেলা  খাওয়ার জোগাড় করতে হিমশিম খাওয়া নিম্ন আয়ের ঘোড়ার মালিকেরা বাধ্যহয়ে তাদের ঘোড়াগুলো কক্সবাজারের রাস্তায় ছেড়ে দিয়েছে। খাদ্যাভাবে দিন দিন দূর্বল হয়ে পড়া সৈকতের এসব ঘোড়া এখন মৃত্যুর মুখোমুখি।

সংকটাপন্ন কক্সবাজারের এইসব ঘোড়ার পাশে দাড়িয়েছে এক মানবিক মানু্ষ। গণমাধ্যমে কক্সবাজারের ঘোড়ার দূর্দিনের কথা জানতে পেরে এসব ঘোড়ার দায়িত্ব নিয়েছেন যুবলীগের কেন্দ্রিয় যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ব্যারিস্টার শেখ নাঈম।  কক্সবাজারের এসব ঘোড়ার এক মাসের খাওয়ার মালিকদের কাছে পৌছে দিচ্ছেন বঙ্গবন্ধু পরিবারের এই কৃতিসন্তান। সোমবার (০৫ জুলাই) কক্সবাজারের সমিতি পাড়ার ঘোড়ার মালিকের কাছে শেখ নাইমের পক্ষে ১ মাসের খাদ্য পৌছে দেয়া হয়।

সোমবার থেকে শুরু হওয়া এই কার্যক্রম পর্যায়ক্রমে সকল ঘোড়ার মালিকের কাছে পৌছে দেয়া হবে বলে জানিয়েছেন এই কাজের সমন্বয়ক কক্সবাজার জেলা যুবলীগের সভাপতি সোহেল আহম্মদ বাহাদুর। এসময় উপস্থিত ছিলেন যুবনেতা ইমরুল কায়েস চৌধুরী, ইয়াছির আরাফাত রিগ্যান, মোস্তাক আহমেদ, নজরুল ইসলাম, শহীদুল ইসলাম বাবুল, ছুরুত আলম রওশন, এরশাদ ও আবদুল কাদের।

Facebook Comments