ছাত্রদল-ছাত্রলীগের মারমুখি অবস্থানে ফের সংঘর্ষের আশংকা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে। ছাত্রলীগের ‘বেপরোয়া হামলার’ প্রতিবাদে ছাত্রদলের ডাকা বিক্ষোভ কর্মসূচিকে ঘিরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে উত্তেজনা বিরাজ করছে। এ পরিস্থিতিতে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা লাঠিসোটা হাতে ক্যাম্পাসের বিভিন্ন স্থানে অবস্থান নিয়েছেন। গত মঙ্গলবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) ক্যাম্পাসে এ ঘটনা ঘটে।

এদিকে ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা ক্যাম্পাসসংলগ্ন হাইকোর্ট এলাকায় অবস্থান নিয়েছেন। শতাধিক নেতাকর্মীকে সেখানে দেখা গেছে। তবে ছাত্রদল এ কর্মসূচি বাস্তবায়ন করবে কিনা নিশ্চিতভাবে জানা যায়নি। সরেজমিনে দেখা যায়, আজ বৃহস্পতিবার সকাল ৮টার আগে থেকেই বিভিন্ন হল শাখা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা ক্যাম্পাসে ছাত্রদলের প্রবেশ প্রতিহত করতে লাঠিসোঁটা, স্ট্যাম্প হাতে মহড়া দিচ্ছে। অনেককে বাইকে করে শোডাউন দিতে দেখা গেছে।

এ সময় তাদের ছাত্রদলের বিরুদ্ধে স্লোগান দিতে দেখা যায়। এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত (বেলা সাড়ে ১১ টা) তারা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি, মধুর ক্যান্টিন, শহীদ মিনার, দোয়েল চত্বর, ভিসি চত্বর ও পলাশী, কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারসহ গুরুত্বপূর্ণ সব পয়েন্টে অবস্থানে ছিল।

এদিকে যেকোনো মূল্যে এই কর্মসূচি বাস্তবায়নের ঘোষণা দিয়েছে ছাত্রদল। বুধবার (২৫ মে) রাজধানীর নয়াপল্টনে দলীয় কার্যালয়ে একটি সংবাদ সম্মেলনে ঢাবি ছাত্রদলের সদস্যসচিব আমানউল্লাহ আমান বলেছেন, তারা (ছাত্রলীগ) বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র, আমরাও ছাত্র। অতএব তাদের ক্যাম্পাসে অবস্থানের যতটুকু অধিকার, আমাদেরও ঠিক ততটুকুই অধিকার।

তিনি বলেন, তারা (ছাত্রলীগ) যেভাবে আমাদের সাথে আচরণ করবে, আমরাও তাদের সাথে ঠিক তেমন আচরণই ফিরিয়ে দেব। তবে ছাত্রদলকে ক্যাম্পাসে প্রবেশ করতে দেয়া হবে না বলে জানিয়েছে ছাত্রলীগ। দলটির নেতাকর্মীরা ইতোমধ্যেই ফেসবুকসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তাদের প্রতিহত করার ঘোষণা দিয়েছে। তারা ইতোমধ্যে পুরো ক্যাম্পাসের গুরুত্বপূর্ণ সব পয়েন্টে অবস্থান নিয়েছে। লাঠিসোঁটা, স্টাম্প, রডসহ দেশীয় অস্ত্রেরও দেখা মিলছে তাদের হাতে।

আপনার মন্তব্য